কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবটঃ কর্মক্ষেত্রে হুমকি নাকি সম্ভাবনা ?

বর্তমান সময়ে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবট নিয়ে আমাদের ভীতির শেষ নেই। সম্প্রতি টিভি, সিরিয়াল ও সিনেমায় যে ধরণের রোবট ব্যবহার করছে সেগুলো অনায়াসেই মানুষের কর্মসংস্থানের জায়গা দখলে নিতে পারে বলে আশঙ্কা করছে অনেকে। কিন্তু, MIT Technology Review বলছে ভিন্ন কথা, তাদের মতে, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাধারী এই সকল রোবট নিয়ে এতটা শঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই, তারা আমাদের জন্য অতটা ক্ষতিকরও নয়।

pilabsbd_ai-mind

 

আধুনিক কালের রোবটের মধ্যে সর্বোচ্চ বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবটিরও হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যারের এমন নিখুঁত কোন কম্বিনেশন নেই যা থেকে মনে হতে পারে এই সকল কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবট মানব সমাজের জন্য হুমকির কারণ হতে পারে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা আমাদের দৈনন্দিন কাজকে সহজ করবে, বিভিন্ন প্রজেক্টে একান্ত সচিবের দায়িত্বও নিতে পারে, কিন্তু অবশ্যই সেটা কর্মসংস্থান দখল করার মতো পর্যায়ে পৌঁছবে না এবং সেটা মানুষের বিকল্প হিসেবেও নয়।

বাস্তবতা হল, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবট মানবিক উপাদানগুলোর দিকে লক্ষ্য রেখেই তৈরি করা হয়, যাতে করে তারা সদা পরিবর্তনশীল ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কাজে মানুষকে সর্বোচ্চ এনার্জি দিয়ে সাহায্য করতে পারে। তাছাড়া, ঝুকিপূর্ণ পরিস্থিতে রোবট আমাদের জন্য আশীর্বাদ বলা যায়। যেমন, হঠাৎ কোথাও আগুন লেগে গেলে উদ্ধার কাজে এদের ব্যবহার করা যায়, এছাড়াও অনুকরণমূলক বিভিন্ন কাজে রোবট খুব ইফেকটিভলি ব্যবহার করা হচ্ছে। তাই রোবট মানুষকে নিয়ন্ত্রণ করবে এই ধারণা অলীক এবং অনেকটাই অসম্ভব বলা যায়।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন যন্ত্রগুলো নিয়ে তাই ভয়ের কিছু নেই বরং এই সকল রোবটগুলোকে আমরা আমাদের সঙ্গী কিংবা কাজের সহযোগী হিসেবে স্বাগত জানাতে পারি। তারপরও কোন জড়তা বা অস্পষ্টতা থাকলে নিজেই ঘেঁটে দেখতে পারেন, এখন পর্যন্ত সাইন্স ফিকশন অনুকরণে নয় বরং বাস্তবতার কথা, মানব কল্যানের কথা মাথায় রেখেই তৈরি হচ্ছে এ সকল কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবট।